ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম

বর্তমান যুগ তথ্য প্রযুক্তির যুগ। তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে সবাই চায় নিজের একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে। কিন্তু সঠিক জ্ঞান না থাকায় তারা তা তৈরি করতে পারে না। ওয়েবসাইট তৈরি করা খুব একটা বেশি কঠিন কাজ, তা কিন্তু না। একেবারে সহজ তাও বলবো না। তবে আপনি চেষ্টা করলে নিজেই একটি নিজের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। বর্তমানে ওয়েবসাইট তৈরি করতে কোন প্রকার কোডিং জ্ঞান জানা থাকতে হবে না। কোডিং জ্ঞান ছাড়াই আপনি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে সহজে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। প্রশ্ন হচ্ছে কিভাবে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন ? আমি আপনাদের ওয়েবসাইট তৈরি করার কৌশল শিখিয়ে দিবো। আপনি যদি এই আর্টিকেলটি ভালো ভাবে পড়েন তাহলে আপনি অনায়াসে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হলে আপনাকে আর্টিকেলটি একটু ধৈর্য্য ধরে পড়তে হবে। তবেই পূর্নাঙ্গ বিষয়টি জানতে পারবেন।

ওয়ার্ডপ্রেস কি :

ওয়ার্ডপ্রেস হচ্ছে একটি CMS বা কনটেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম সফটওয়ার। এখানে সহজে প্রায় যে কোন প্রকার ওয়েবসাইট তৈরি করা যায়। বিজনেস সাইট, ব্লগসাইট, কর্পোরেট সাইট, নিউজ সাইট, অফিস আদালত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট ইত্যাদি ধরনের ওয়েবসােইট তৈরি করতে পারবেন। সবচেয়ে বড় কথা হলো এখানে কোন প্রকার কোডিং জ্ঞান জানা থাকতে হবে না। কোডিং জ্ঞান ছাড়াই যে কোন ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন। বর্তমানে বিশ্বের প্রায় 50-60% ওয়েবসাইট ওয়ার্ডপ্রেস সাইট দিয়ে তৈরি করা হয়ে থাকে। এই সফটওয়ার দ্বারা সহজে কোন বিষয় সংযোজন করা যায়, আবার বিয়োজন করা যায়। তাই সবার কাছে এই সফটওয়ারটির গ্রহনযোগ্যতা বেশি। বিশ্বের অনেক বড় বড় ওয়েব ডিভোলপাররা এই সাইট দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করে থাকেন।

ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি জিনিস প্রয়োজন :

ওয়েবসাইট তৈরি করতে নিচের জিনিস গুলো প্রয়োজন পড়ে থাকে।

  1. ডোমেন নেম
  2. হোস্টিং সার্ভার
  3. টেম্পেলেট বা থিম
  4. প্লাগিন
  5. কাস্টমাইজ করা।

1. ডোমেন নেম :

ডোমেন নেম হচ্ছে ওয়েবসাইটের নাম। আপনি যে নামে ওয়েবসাইট খোলতে চাচ্ছেন তার নামই হচ্ছে ডোমেন নেম। আপনি যে বিষয়ের উপর ভিত্তি করে ওয়েবসাইট খোলতে চাচ্ছেন সে বিষয় রিলেটেড একটি ইউনিক নাম দিয়ে ডোমেন নেম সিলেক্ট করুন। প্রতিটি ওয়েবসাইট খোলতে গেলে ডোমেন নেমের শেষে একটি এক্সটেনশন যোগ করতে হয়। যেমন: .com, .net, .co, .xyz, .org, .me, .edu ইত্যাদি। তবে মনে রাখবেন সব সময় .com, .net এক্সটেনশেন ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন। তাতে আপনার সাইটের ভেলু বাড়বে। আর ডোমেন নেম যত ছোট করা যায় ততোই ভালো। তাতে অনেক সুবিধা পাবেন।

2. হোস্টিং সার্ভার :

হোস্টিং সার্ভার হচ্ছে আপনার ওয়েবসাইটের কনটেন্ট বা যাবতীয় তথ্য রাখার স্থান। যেখান থেকে ওয়েবসাইটকে ইন্টারনেটে লাইভ করানো হয়ে থাকে। হোস্টিং সার্ভার ছাড়া ওয়েবসাইটের কল্পনা করা যায় না। একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে হোস্টিং সার্ভার থাকতে হবে। হোস্টিং সার্ভার ছাড়া আপনার ওয়েবসাইটকে কেউ খোজে পাবে না। তাই একটু ভালো মানের হোস্টিং সার্ভার ক্রয় করার চেষ্টা করবেন। আর ডোমেন এবং হোস্টিং একই কোম্পানী থেকে ক্রয় করা ভালো তাতে DNS ঝামেলায় পড়তে হয় না। ডোমেন হোস্টিং ভালো কম্পানীর হলে লোডিংস্পীড নিতে সহজ হয়।

3. টেম্পেলেট বা থিম :

ওয়েবসাইট রান করতে হলে ভালো মানের টেম্পেলেট বা থিমের প্রয়োজন হয়। তাই দেথে শুনে একটি ভালোমানের থিম চুজ করুন। ওয়ার্ডপ্রেসে অনেক ফ্রি থিম পাওয়া যায় আবার অনেক পেইড থিম পাওয়া যায়। ফ্রি থিমের সুবিধা একটু কম আর পেইড থিমের সুবিধা একটু বেশি। তবে অনেক ফ্রি থিমও মোটামুটি ভালো হয়ে থাকে পেইডের মতো সুবিধা পাওয়া যায়। দেখে শুনে পছন্দ মতো একটি থিম সেট করুন।

4. প্লাগিন :

ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে প্লাগিনের প্রয়োজন পড়ে। প্লাগিন হচ্ছে সাহায্যকারী কিছু টুলস। প্লাগিন ছাড়া ওয়েবসাইট অনপেজ এস ই ও করতে পারবেন না। প্লাগিন ছাড়া সাইটের স্পীড বৃদ্ধি করতে পারবেন না। প্লাগিন ছাড়া সাইটের ব্যাকআপ নিতে পারবেন না। মোট কথা প্লাগিন একটি ওযেবসাইটের ডিভলোপের ক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন তথ্য পাওয়ার ক্ষেত্রে সাহায্য করে থাকে।

5. কাস্টমাইজ করা :

ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে গেলে সাইটকে কাস্টমাইজ করতে হবে। একটি ওয়েবসাইটের কোথায় কি থাকবে, তা কাস্টমাইজের মাধ্যমে একটি ওয়েবসাইটকে সাজাতে হবে। ওয়েবসাইটের লুক বা সৌন্দর্য্য ফুটিয়ে তুলতে হলে কাস্টমাইজ করা আবশ্যক। একটি ওয়েবসাইটের প্রতি ভিজিটরের আকর্ষন বৃদ্ধি করতে হলে ওযেবসাইটকে সুন্দর ভাবে সাজাতে হবে। মোটকথা একটি ওয়েবসাইটের বাহ্যিক কাঠামোকে ফুটিয়ে তুলতে হলে সটিক ভাবে কাস্টমাইজ করতে হবে।

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম :

ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে ডোমেন এবং হোস্টিং থাকা আবশ্যক। তাই ভালো কোনো কোম্পানী থেকে ডোমেন এবং হোস্টিং ক্রয় করতে হবে। ডোমেন এবং হোস্টিং ক্রয় করার সময় কোম্পানী আপনাকে একটি সি- প্যানেল দিবে। সি- প্যানেল ওপেন করার জন্য তারা আপনাকে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিবে। সেই ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে সি প্যানেল থেকে ওপেন করতে হবে। সি- প্যানেল ওপেন করলে নিচের মতো দেখতে পাবেন। প্রথমে কোনো ব্রাউজারে আপনার সাইটের নাম লিখে পাশে /cpanel লিখুন। যেমন : https://ictcorner.com/cpanel/ . ইন্টার করলে নিচের মতো দেখতে পাবেন।

Cpanel :

Cpanel

এই ইন্টারফেসে কোম্পানী কর্তৃক দেওয়া Username এবং Password বসে Log in করতে হবে। তাহলে নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম :

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম

এই ইন্টারফেসে উপরের দিকে একটি লক্ষ্য করে দেখবেন File manager রয়েছে। এই ফাইল ম্যানেজারে Public_html এ ক্লিক করে ওয়ার্ডপ্রেস. অর্গ সাইট, ডাউনলোডকৃত ফাইল আপলোড করতে হবে। এবার ইন্টারফেসে নীল তীর চিহ্ন দিয়ে দেখানো W এর উপর ক্লিক করুন। তখন নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

Cpanel 3 :

Cpanel 3

Cpanel 4 :

Cpanel 4

Cpanel 5 :

Cpanel 5

উপরের ইন্টারফেস তিনটি আপনি এক সঙ্গে দেখতে পাবেন। আমার এখানে এক সঙ্গে আনা সম্ভব হয় নাই তাই কেটে কেটে আনতে হয়েছে। এখন আসুন এই ইন্টারফেসে কি কাজ করতে হবে। প্রথমে তীর দিয়ে দেখানে install এ ক্লিক করুন। তখন নিচের মতো পূর্নঙ্গ ইন্টারফেস দেখতে পাবেন। টিক দেওয়া দুটিতে যা আছে তাই থাকবে। লাল গোল করা বৃত্তে wp কেটে দিবেন। এবার নিচে আসুন 1 নম্বারে Site name এর ঘরে আপনার ওয়েবসাইটের নাম লিখুন। 2. Admin username এর ঘরে একটি ইউজার নেম বসান যাতে সহজে মনে থাকে। বা অবশ্যই কোন জায়গায় লিখে রাখবেন। এটা অবশ্য অবশ্যই লিখে রাখতে হবে। 3. Site description এর ঘরে আপনার সাইট সম্পর্কে ইচ্ছামতো এক লাইনে কিছু লিখুন। 4. password এর ঘরে একটি স্ট্রং পাসওয়ার্ড দিন। পাসওয়ার্ড অবশ্য অবশ্যই মনে রাখতে হবে এবং কোন জায়গায় লিখে রাখতে হবে। 5. Email এর ঘরে আপনার নিজের ইমেল লিখে দিন। শেষ ইন্টারফেসে উপরে তীর দিয়ে দেখানো Advanced options এর জায়গায় ক্লিক করুন। একটি ঘর পাবেন সেখানে ডাটাবেজ নেম লিখুন। দুই নম্বারের ইউজান নেম এবং Advanced options এর ডাটাবেজ একই লিখা ভালো, তাতে মনে রাখতে সুবিধা হবে। শেষ তীর চিহ্ন দেওয়া ঘরে আপনার আগের ইমেলটি লিখুন। এবার লাল আয়াতাকার ঘরে Install বাটনে ক্লিক করুন। কিছুক্ষন সময় নিবে ইনস্টল হতে। ইনস্টল হয়ে গেলে আপনার কাজ শেষে। বাছ হয়ে গেল আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল।

এবার অন্য একটি ট্যাবে আপনার সাইটের লিংক লিখে তার পাশে /wp-admin লিখে ইন্টার করুন। যেমন : https://ictcorner.com/wp-admin/ . ব্রাউজারে এই লিংকের মতো লিখে সার্চ করলে নিচের মতো ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম. 2 :

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম. 2

এই ইন্টারফেসে আপনার দেওয়া Username এর জায়গায় ইউজার নেম বসান অথবা email বসান। password এর ঘরে পাসওয়ার্ড বসে লগ ইন করুন। তাহলে নিচের মতো একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন। এই ইন্টারফেসটি আপনার সাইটের ব্যাকেনডে।

Cpanel 7 :

ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম.3

এই ইন্টারফেস আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকেনডে। এখান থেকে আপনার সাইটের থিম, প্লাগিন, কন্টেন্ট সহ সকল কাজ কাস্টমাইজ করতে হবে। যা আপনি ফ্রন্ট ইন পেজে দেখতে পাবেন। এখন এখান থেকে আপনার থিম ইনস্টল করে কাস্টমাইজ করে সাইট রান করুন।

পরিশেষে কথা হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস সফটওয়ার দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করা একটি সহজ কাজ এবং কোমফোর্টেবল। উপরের আর্টিকেলটি ফলো করে সি- প্যানেল থেকে আপনার সাইট ইনস্টল করার চেষ্টা করুন। সহজে আপনার ওয়েবসাইট ইনিস্টল করতে পারবেন। আশা করি এই আর্টিকেল পড়ে ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন। এতক্ষন সংগে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Related posts

2 Thoughts to “ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম”

  1. Hey terrific blog! Does running a blog like this
    take a massive amount work? I have very little knowledge of programming but I was hoping to start my own blog in the near future.
    Anyhow, should you have any ideas or techniques for new blog
    owners please share. I understand this is off subject but I just had to ask.
    Thanks!

  2. This text is worth everyone’s attention. When can I find out more?

Leave a Comment